ক্যানসার রোগ থেকে বাচতে খেতে হবে ড্রাই ফ্রুটস

দুর্বা ডেস্ক :: স্বাস্থ্য ভালো রাখতে প্রয়োজন স্বাস্থ্যসম্বত ভালো মানের ফল,সবজি, আমিস জাতীয় খাদ্য গ্রহণ করা। সবাই কম বেশী খেয়েও থাকি। প্রয়োজনের বাহিরে বেশী খাদ্য খেয়ে আবার বিপাকেও পরতে হচ্ছে। আজ আপনাদের মাঝে পরিচয় করে দেবো কিছু ড্রাই জাতীয় ফলের নাম সহ কিভাবে খেতে হয় এবং খেলে কি কি  ক্ষতি হয় শরীরে।

 

আমরা সবাই কম-বেশি ড্রাই ফ্রুটসের সাথে পরিচিত। কারণ এখন অধিকাংশ মানুষ ওজন নিয়ে বেশ সচেতন। আর এ খাবারটি ডায়েটের জন্য উপযুক্ত। অনেকে আবার ব্রেকফাস্টে ড্রাই ফ্রুটস রাখেন। কারণ এটি শরীরে মেটাবলিজমের রেট বাড়িয়ে দেয়।

 

ড্রাই ফ্রুটসে প্রচুর পরিমাণের ফাইবার থাকে যা শরীরের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। ড্রাই ফ্রুটস মূলত তাজা ফলকে শুকিয়ে প্রস্তুত করা হয়। বিশেষজ্ঞরা প্রত্যেককে ড্রাই ফ্রুটস খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

 

এ ছাড়া যারা নিয়মিত ডায়েট করে তাদের প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় অবশ্যই এটি রাখা জরুরী। তবে ড্রাই ফ্রুটস কাঁচা খাওয়া থেকে ভিজিয়ে খাওয়া বেশি ভালো। আর এতে আছে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন। যে কারণে চিকিৎসকেরাও পরামর্শ দেন এটি পরিমাণ মতো খাওয়ার।

 

ড্রাই ফ্রুটসে আছে অনেক ভিটামিন যা শরীরের খুব সহজেই প্রবেশ করে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে অকেন বাড়িয়ে তোলে। এটি ওজন কমাতেও বেশ কার্যকরী। তবে ডায়াবেটিস রোগীদের একটু কম খাওয়াই ভালো।

 

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতেও কাজ করে ড্রাই ফ্রুটস। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-এজিং উপাদান যা খেলে চেহারায় তারুণ্য ফিরে আসে। এ ছাড়া এটি দাঁত, হার্ট, হাড় ও চোখের জন্য বেশ উপকারী।

 

অন্ত্রের সমস্যা বা ক্যানসারের মতো রোগ থেকে দূরে রাখে ড্রাই ফ্রুটস। এতে এমন কিছু উপাদান থাকে যা হার্ট ডিজিস, ডায়াবেটিস, ব্রেন ডিজিসের মতো রোগ থেকে দূরে রাখে। তবে বিশেষজ্ঞরা বলেন, এতে প্রাকৃতিকভাবে যে চিনি থাকে তা অ্যানিমিয়া রোধ করতে সাহায্য করে।

 

পুষ্টিবিদদের মতে প্রতিদিন একমুঠো ড্রাই ফ্রুটসই যথেষ্ট। কাঠবাদাম আর কাজুবাদামের প্রতি আউন্সে ক্যালোরি থাকতে পারে ১৬০ পর্যন্ত। তবে চিয়া বীজ আর সূর্যমুখীর বীজের ক্যালরির মাত্রা কোন অংশে কম নয়। আবার বাদামেও ক্যালরি থাকে প্রচুর।

 

পুষ্টিবিদদের মতে ক্যালোরি ও চিনির ঘনত্ব বেশি থাকে ড্রাই ফ্রুটসে যা প্রয়োজনের তুলনায় বেশি খেলে ওজন, পেটে গ্যাসের সমস্যা, এমনকি ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রোগীর রক্তে শর্করার পরিমাণ বাড়িয়ে দেয়। কাঠবাদামে থাকা ‘মাইক্রোনিউট্রিয়েন্ট’ অল্প পরিমাণে খেলেই শুধু উপকারে আসবে। তবে খেজুরেও প্রচুর পরিমাণে আয়রন, পটাশিয়ামসহ আরো অনেক পুষ্টি ও খনিজ উপাদান আছে যা শরীরের জন্য ভালো।

আরো পড়ুন: কেন জাম খাবেন?

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

এগুলো দেখুন

চায়ের কেজি লাখ টাকা

যে চায়ের কেজি লাখ টাকা

জেনে নিন যে চায়ের কেজি লাখ টাকা । আসুন এ বিষয়ে আজকে আমরা আলোচনা করে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.