তৃতীয়বারের মত হেফাজত নেতা আতাউল্লাহ রিমান্ডে

স্টাফ রিপোর্টার :: হেফাজত ইসলামের বিলুপ্তি কমিটির কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা আতাউল্লাহ আমীনের তৃতীয় দফায় ৬ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। বিগত ২০১৩ সালের রমনা ও শাহবাগ থানার পৃথক ২ মামলায় এ রিমান্ড আবেদন করা হয়।

আজ (বুধবার ৫ মে) ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দেবব্রত বিশ্বাসের আদালত রিমান্ডের আদেশ দেন। আদালতের সংশ্লিষ্ট থানার সাধারণ নিবন্ধন জিআর শাখা থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আসামিকে আদালতে হাজির করেন ২ মামলায় ৭ দিন করে মোট ১৪ দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করেন। শুনানি শেষে আদালত তার ২ মামলায় ৩ দিন করে মোট ৬ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে গত ২০ এপ্রিল রাত সাড়ে ১২টার দিকে রাজধানীর মোহাম্মদপুর জামিয়া রাহমানিয়া আরাবিয়া থেকে মাওলানা আতাউল্লাহ আমীনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর গত ২২ এপ্রিল শাপলা চত্বরে হেফাজতে ইসলামের তাণ্ডবের ঘটনায় করা মামলায় তাকে ৫ দিনের রিমান্ড দেন আদালত।

একই মামলায় গত বুধবার (২৮ এপ্রিল) নাশকতার ২ মামলায় মাওলানা আতাউল্লাহ আমীনের ৬ দিনের রিমান্ড দিয়েছিলো।

প্রসঙ্গত, বিগত ২০১৩ সালের ৫ মে ঢাকা অবরোধ করেন হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা। এ অবরোধে লাঠিসোটা, ধারালো অস্ত্র ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে রাজধানীর মতিঝিল, পল্টন ও আরামবাগসহ আশপাশের এলাকায় যানবাহন ও স্থাপনায় ব্যাপক ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করেন হেফাজত কর্মীরা।

এরপর স্বাধীনতার ৫০ বছর সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির দেশে আসা নিয়ে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় ব্যাপক তাণ্ডব চালায় হেফাজতে ইসলাম। এছাড়া হেফাজতের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হকের রিসোর্টকাণ্ডের পর এক এক করে হেফাজতের নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার শুরু করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

গ্রেপ্তারের পর হেফাজতের ওইসব নেতাদের বেশ কয়েকবার রিমান্ডেও নেয় পুলিশ। এখন পর্যন্ত সারা দেশে হেফাজতের ৫০০ এর বেশি এবং ২৩ কেন্দ্রীয় নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

 

 

যুক্ত হোন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে এখানে ক্লিক করুণ।

এগুলো দেখুন

ই-পর্চা অ্যাপ ডাউনলোড

ই-পর্চা অ্যাপ ডাউনলোড

জেনে নিন কিভাবে ই-পর্চা অ্যাপ ডাউনলোড করবেন। আসুন এ বিষয়ে আজকে আলোচনা করে বিস্তারিত জেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.