বজ্রপাতে মৃত্যু ৮

স্টাফ রিপোর্টার :: দেশের ৩ জেলায় ঝড়-বৃষ্টির সময় বজ্রপাতে ৮ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এর মধ্যে জামালপুর জেলার বকশীগঞ্জ ও দেওয়ানগঞ্জে ১ নারীসহ ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। চাঁপাইনবাবগঞ্জে মারা গেছেন মা-ছেলেসহ ৩ জন। আর বাগেরহাটের শরণখোলায় মারা গেছে ১ যুবক।

বজ্রপাতে মৃত্যুর সব ঘটনায় ঘটেছে আজ (শুক্রবার ৪ জুন) বিকেলে।

জামালপুর প্রতিনিধি জানান, বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে জেলার বকশীগঞ্জ উপজেলার মেরুরচর ইউনিয়নের পূর্ব কলকিহারা, উত্তর মাইছানিরচর গ্রামে বজ্রপাতে ৩ জন মারা যান। তারা হলেন- পূর্ব কলকিহারা গ্রামের মহিজল হকের ছেলে হরবাদশা, একই গ্রামের আব্দুল খালেকের স্ত্রী আকিজা বেগম এবং উত্তর মাইছানিরচর গ্রামের কালা মিয়ার ছেলে খলিলুর রহমান।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, খলিলুর রহমান বৃষ্টির সময় ব্রহ্মপুত্র নদে গোসল করতে যান। এসময় বজ্রপাত হলে তিনি সেখানেই মারা যান।

অন্যদিকে ক্ষেত থেকে ধান নিয়ে বাড়িতে ফেরার পথে হরবাদশা ও বাড়ির পাশে খড় শুকাতে গিয়ে বজ্রপাতে আকিজা বেগম মারা যান।

একই সময়ে জেলার দেওয়ানগঞ্জে বজ্রপাতে আনা মিয়া নামে এক কিশোরের মৃত্যু হয়। উপজেলার গামারিয়া গ্রামের আবেল মিয়ার ছেলে আনা মিয়া রাজমিস্ত্রির কাজ শেষে বাড়ি ফেরার পথে চিকাজানী দীঘিরপাড় এলাকায় বজ্রপাতে তার মৃত্যু হয়।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, বিকেলে আম কুড়াতে গিয়ে বজ্রপাতে মা-ছেলেসহ ৩ জন মারা গেছেন। সদর উপজেলার সুন্দরপুর ও চরবাগডাঙ্গা ইউনিয়নে বজ্রপাতে তাদের মৃত্যু হয়।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাফফর হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বজ্রপাতে মৃতরা হলো- সদর উপজেলার সুন্দরপুর ইউনিয়নের পাঁচরশিয়া গ্রামের রানার স্ত্রী এ্যানি খাতুন, তার ছেলে নূর মোহাম্মদ এবং চরবাগডাঙ্গা ইউনিয়নের টিকলীচর গ্রামের আব্দুল মতিনের ছেলে ইয়াসির আরাফাত।

জানা গেছে, বিকেলে ঝড়ো হাওয়া শুরু হলে মা ও ছেলে বাড়ির পাশের আমবাগানে যায়। এ সময় বজ্রপাত হলে ঘটনাস্থলেই মা এ্যানি খাতুন মারা যায়। আহত অবস্থায় ছেলে নূরকে হাসপাতালে নেয়ার পথে তারও মৃত্যু হয়। এছাড়া আম কুড়াতে গিয়ে চরবাগডাঙ্গা ইউনিয়নে ইয়াসির আরাফাত নামে এক শিশু বজ্রপাতে মারা গেছে।

বাগেরহাট প্রতিনিধি জানান, জেলার শরণখোলায় বজ্রপাতে আবু বক্কর খান (২৬) নামে এক যুবক মারা গেছেন। বিকেলে উপজেলার রাজাপুর গ্রামে বাড়ির পাশের মাঠে গরু আনতে গিয়ে বজ্রপাতে তিনি মারা যান।

নিহত আবু বক্কর শরণখোলা উপজেলার রায়েন্দা ইউনিয়নের দক্ষিণ রাজাপুর গ্রামের বাবুল খানের ছেলে।

শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইদুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

 

যুক্ত হোন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে এখানে ক্লিক করুন।

এগুলো দেখুন

জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে চাকরি

ধীরে ধীরে খুলছে সরকারি চাকরির নিয়োগজট

স্টাফ রিপোর্টার :: করোনা নিয়ন্ত্রণে আসায় ধীরে খুলছে বিভিন্ন স্তরের সরকারি চাকরির নিয়োগজট। আগে থেকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.