মুসলিমদের জন্য সু-খবর! খোলা হতে পারে মুসলিম জাতিসংঘ

মুসলিমদের জন্য সু-খবর! খোলা হতে পারে মুসলিম জাতিসংঘ। এবার বিশ্ব মুসলিমদের জন্য একটি জাতিসংঘ খোলার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে বাংলাদেশের মুসলিমদের পক্ষ থেকে। আজ খেলাফত মজলিসের নেতা অধ্যাপক কেএম আলম এমনটাই জানালেন।

ফিলিস্তিনি মুসলমানদের ওপর পৈশাচিক হামলা, নির্যাতন ধ্বংসযজ্ঞ বন্ধে বিশ্ব বিবেককে ভূমিকা পালনের আহ্বান জানানো হয় সমাবেশ থেকে।

খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক কেএম আলম বলেন, আমরা জাতিসংঘ ও ঐক্যবদ্ধ বিশ্ব মুসলিম শক্তিকে আহ্বান জানাচ্ছি ইসরাইলের বিরুদ্ধে ভূমিকা পালন করার জন্য। ইসরাইল নিজেই অবৈধ। অথচ তারা নিজেরাই অবৈধভাবে শক্তি প্রয়োগ করছে ফিলিস্তিনী নর-নারীর ওপরে।

মুসলিম জাতিসংঘ খোলার দাবি শান্তি প্রিয় ফিলিস্তিনের নারী-পুরুষ, মাসুম শিশুসহ সর্বস্তরের মুসলিম জনগণের ওপর ইসরাইল যে বর্বোরোচিত হামলা চালিয়ে আসছে- তা দেখেও নীরব জাতিসংঘ, ওআইসি, আরব লীগসহ তথাকথিত মানবাধিকার সংস্থাগুলো। এটা লজ্জার।

ফিলিস্তিনে মুসলিমদের ওপর ইসরাইলি আগ্রাসনের প্রতিবাদ ও তা বন্ধের দাবিতে ঢাকায় পৃথক বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা এসব কথা বলেছেন।

সমাবেশ থেকে মুসলিম দেশগুলোর প্রতি মুসলিম জাতিসংঘ খোলার দাবি উঠেছে। শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের সামনে পৃথক এই সমাবেশ করে খেলাফত মজলিস, বাংলাদেশ আওয়ামী ওলামা লীগ ও সম্মিলিত ইসলামী গবেষণা পরিষদ।

ফিলিস্তিনি মুসলমানদের ওপর পৈশাচিক হামলা, নির্যাতন ধ্বংসযজ্ঞ বন্ধে বিশ্ব বিবেককে ভূমিকা পালনের আহ্বান জানানো হয় সমাবেশ থেকে। খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক কেএম আলম বলেন, আমরা জাতিসংঘ ও ঐক্যবদ্ধ বিশ্ব মুসলিম শক্তিকে আহ্বান জানাচ্ছি ইসরাইলের বিরুদ্ধে ভূমিকা পালন করার জন্য। ইসরাইল নিজেই অবৈধ। অথচ তারা নিজেরাই অবৈধভাবে শক্তি প্রয়োগ করছে ফিলিস্তিনী নর-নারীর ওপরে।

আরও পড়ুন:মুসলিম নেতারা যাচ্ছেন না বাইডেনের দাওয়াতে

আরও পড়ুন:ইসরায়েলি হামলা: গাজায় শিশুসহ নিহত বেড়ে ৬৫

আরও পড়ুন:যুদ্ধবিরতির পক্ষে বাইডেন

এটা কোনোভাবে বরদাস্ত করা যায় না। দুঃখজনক হলেও সত্য ইসরাইলের পৈশাচিক দখল, নিরীহ মানুষের ওপর হামলা-নির্যাতন খুনের ঘটনায় বিশ্ববিবেক এখনো নীরব ভূমিকা পালন করছে। আমরা স্পষ্টভাবে বলতে চাই, ফিলিস্তিনি মুসলমান ভাই-বোনদের পাশে রয়েছে বাংলাদেশের মুসলমান শান্তিকামী মানুষ।

গবেষণা পরিষদের চেয়ারম্যান হাফেজ মাওলানা আবদুস সাত্তার বলেন, ইসরাইল শান্তি প্রিয় ফিলিস্তিনের নারী, পুরুষ, মাসুম শিশু, যুবকসহ সর্বস্তরের মুসলিম জনগণের ওপর যে বর্বোরোচিত হামলা চালিয়ে আসছে তা দেখেও নীরব জাতিসংঘ, ওআইসি, আরব লীগসহ তথাকথিত মানবাধিকার সংস্থাগুলো।

এটা লজ্জার। তাদের নীরবতা দেখে তারা বোবা শয়তানের পরিচয় দিচ্ছে। তাই আমরা মুসলিম দেশগুলোর প্রতি আলাদা মুসলিম জাতিসংঘ খোলার দাবি জানাচ্ছি।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেল ঘুরে আসুন

এগুলো দেখুন

বিশ্বের সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ বিমানবন্দর

বিশ্বের সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ বিমানবন্দর

জেনে নিন বিশ্বের সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ বিমানবন্দর সম্পর্কে। আসুন এ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা যায়। একবিংশ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.