যে রেস্টুরেন্টে মেলে সোনায় মোড়ানো খাবার

যে রেস্টুরেন্টে মেলে সোনায় মোড়ানো খাবার কথাটা শুনলেই কেমন যেন একটু লাগে তাই না? হ্যাঁ সত্যিকারেই এমন রেস্টুরেন্ট আছে। তাহলে চলুন আমরা আজকে জেনে নেই এমন রেস্টুরেন্ট কোথায় আছে?

ছেলেবেলায় আইসক্রিমওয়ালার টুংটাং ঘণ্টি শুনে দৌঁড়ে কাঠি আইসক্রিম থেকে কুলফির স্বাদ দেদারসে নিয়েছেন নিশ্চয়ই। আবার দামি দোকানে সাজানো একটা আইসক্রিমের এক স্কুপ চেখে দেখেছেন অনেকেই। কিন্তু সোনায় মোড়া আইসক্রিমের স্বাদ কেমন হতে পারে জানেন? আর সোনায় মোড়া আইসক্রিমের দামটাই বা কত হতে পারে? সোনায় মোড়া একটা আইসক্রিমের এক স্কুপ কিনতে হলে আপনাকে গুনতে হবে বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৬৮ হাজার টাকা।

বলা হচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে দামি আইসক্রিম ‘ব্ল্যাক ডায়মন্ড’ এর কথা। এই আইসক্রিমে রয়েছে তাজা ভ্যানিলা বিনসের মনমাতাতো স্বাদ ও ২৩ ক্যারেট ইডিবল গোল্ড। সঙ্গে আছে জাফরান ও ব্ল্যাক ট্রাফেলস।

এই আইসক্রিমের স্বাদ নিতে অবশ্য আপনাকে পাড়ি দিতে হবে দুবাইয়ের স্কুপি ক্যাফেতে। তবে শুধু ‘ব্ল্যাক ডায়মন্ড’ই নয় এই রেস্টুরেন্টের কয়েকটা খাবার আক্ষরিক অর্থেই সোনায় মোড়ানো। সম্প্রতি ট্রাভেল ভ্লগার শেহনাজ ট্রেসুরইয়াওলা এই রেস্টুরেন্টের খোঁজ দিয়েছেন নেটদুনিয়ায়।

ওই রেস্টুরেন্টে পাওয়া যায় চারকোল আইসক্রিম। এই আইসক্রিমের রং কালো। আর আইসক্রিমের ঠিক উপরের দিকে আছে সোনার পাতা লাগানো।

আরো এক ধরনের আইসক্রিম পাওয়া যায় ওই রেস্টুরেন্টে। এই আইসক্রিমের নামও চারকোল। কিন্তু রাজকীয় ভাব আনতে আইসক্রিমের উপর সোনার গুঁড়ো ছিটিয়ে দেয়া হয়।

আইসক্রিম ছাড়াও ওই রেস্টুরেন্টে পাওয়া যায় বার্গার। তবে আর ১০ টা সাধারণ বার্গারের চেয়ে আলাদা এই বার্গারের উপরের দিক সোনার পাতে মোড়ানো থাকে।


আরো পড়ুন: শিশুর ডায়রিয়া হলে কি করণীয়?


কফিপ্রেমীরাও নিরাশ হবেন না এই রেস্টুরেন্টে এসে। কফির সাথে নিতে পারবেন সোনার স্বাদও। কারণ ক্রিম কিংবা চকলেট নয় ২৩ ক্যারেট এডিবল গোল্ড ছিটিয়ে দেয়া হয় এই কফির উপর। সোনায় মোড়ানো এসব খাবার চেখে দেখার ইচ্ছা হলে একবার ঢুঁ মারতে পারেন এই রেস্টুরেন্টে।

যুক্ত হোন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে এখানে ক্লিক করুন।

এগুলো দেখুন

প্রতারণার ফাঁদ ডেটিং অ্যাপস

প্রতারণার ফাঁদ ডেটিং অ্যাপস

প্রতারণার ফাঁদ ডেটিং অ্যাপস । ট্যানট্যান, মামবা ও টিনডারসহ অন্তত ১৫টি ডেটিং অ্যাপসের সন্ধান পেয়েছেন …

Leave a Reply

Your email address will not be published.