৬৪ শতাংশ নারী মোবাইল ইন্টারনেটে সংযুক্ত

৬৪ শতাংশ নারী মোবাইল ইন্টারনেটে সংযুক্ত আইটি ডেস্ক :: তথ্যপ্রযুক্তির কল্যাণকর অগ্রগতির এ সময়ে অন্যতম উপাদান ইন্টারনেট ছাড়া কল্পনা করা যায় না একটি দিনও। ইন্টারনেটের বিশাল তথ্যসমুদ্রে পাওয়া যায় না এমন কিছু নেই। বর্তমান সময়ে ইন্টারনেট ব্যবস্থাকে আরও সহজে মানুষের কাছে পৌঁছে দিচ্ছে হাতের ক্ষুদ্র স্মার্টফোনটি। ইন্টারনেট সংযুক্ত একটি মোবাইলফোন জীবন বদলে দিতে পারে। উন্নয়নশীল দেশগুলোয় এখনো নারী-পুরুষের এই সুযোগ পাওয়ার হারে অনেক ব্যবধান আছে। তবে গত কয়েক বছরে সেটি কমছে।

বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার প্রাপ্ত বয়স্ক নারীদের মধ্যে ৬৪ শতাংশ মোবাইলে ইন্টারনেট ব্যবহার করেন। নারীদের বিপরীতে বাংলাদেশের ৮৪ শতাংশ পুরুষের মোবাইলে রয়েছে ইন্টারনেট সংযোগ।

মোবাইল টেলিযোগাযোগ শিল্পের বৈশ্বিক সংগঠন জিএসএমএ প্রকাশিত প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ, আলজেরিয়া এবং পাকিস্তানের নারীরা মোবাইল ব্যবহারের ক্ষেত্রে পারিবারিক বাধার মুখে পড়েন।

সম্প্রতি প্রকাশিত হয় চতুর্থ বার্ষিক ‘জিএসএমএ মোবাইল জেন্ডার গ্যাপ রিপোর্ট ২০২১’ প্রতিবেদন। মোবাইল ইন্টারনেটের সচেতনতার বিষয়ে রিপোর্টে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে ৭৫ শতাংশ পুরুষ এবং ৬৬ শতাংশ নারী মোবাইল ইন্টারনেট বিষয়ে সচেতন; কিন্তু সবাই এটি কাজে লাগান না। মাত্র ৩৩ শতাংশ পুরুষ এবং ১৯ শতাংশ নারী তাদের সচেতনতা কাজে লাগান।

প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, ভারতের পুরুষেরা বাংলাদেশের থেকে মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারে (৭৯ শতাংশ) পিছিয়ে থাকলেও নারীরা এগিয়ে আছেন। দেশটিতে ৬৭ শতাংশ নারী মোবাইলে ইন্টারনেট ব্যবহার করেন। আর এশিয়ায় ভারত-বাংলাদেশের চেয়ে পিছিয়ে পাকিস্তান। দেশটির ৭৮ শতাংশ পুরুষ মোবাইলের মালিক এবং তারা ডেটা ব্যবহার করেন। সেখানে নারীদের হার ৫২ শতাংশ।

জিএসএমএ প্রতিবেদন অনুযায়ী, বাংলাদেশে বয়স অনুযায়ী মোবাইলের মালিকানায় জেন্ডার গ্যাপ প্রকট। ১৮ থেকে ২৪ বছর বয়সিদের মধ্যে জেন্ডার গ্যাপ ১৭ শতাংশ। এই বয়সি পুরুষদের তুলনায় ৩৯ শতাংশ কম নারী মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহার করেন। যাদের বয়স আবার ৫৫ বছরের বেশি তাদের মধ্যে মালিকানার দিক থেকে জেন্ডার গ্যাপ ৪৬ শতাংশ।


আরো পড়ুন: জাতিসংঘের প্রস্তাবে হতাশ বাংলাদেশ


এই বয়সি পুরুষদের তুলনায় ৮২ শতাংশ কম নারী মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহার করেন। জরিপে নিম্ন এবং মধ্যম আয়ের ৮ টি দেশকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। অংশগ্রহণকারীদের মুখোমুখি সাক্ষাৎকারে তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে। জরিপের জন্য ভারত বাদে অন্য দেশগুলো থেকে ১৮ কিংবা তার বেশি বয়সি ১ হাজার নারী-পুরুষকে বেছে নেয়া হয়। ভারত থেকে নেয়া হয়েছে ২ হাজার জনকে।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে যুক্ত হতে এখানে ক্লিক করুন।

এগুলো দেখুন

ইন্টারনেট ছাড়া ইউটিউব দেখবেন যেভাবে

ইন্টারনেট ছাড়া ইউটিউব দেখবেন যেভাবে

জেনে নিন ইন্টারনেট ছাড়া ইউটিউব দেখবেন যেভাবে। আসুন এ বিষয়ে আলোচনা করে আজকে বিস্তারিত জেনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.