পানি পানের উপকারিতা

DTV Online / ৫২ বার দেখা হয়েছে
আপডেট : রবিবার, ১০ অক্টোবর, ২০২১
পানি পানের উপকারিতা

জেনে নিন পানি পানের উপকারিতা সম্পর্কে। আসুন এ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা যাক। নিয়মিত পানি পান স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। শরীরের বিভিন্ন অঙ্গপ্রত্যঙ্গ এবং কোষ সঠিকভাবে পরিচালিত হয় পানির মাধ্যমে। শরীর সুস্থ রাখতে একজন মানুষের প্রতিদিন ৭-৮ গ্লাস পানি পান করা প্রয়োজন।



পানি পানের উপকারিতা

কেন মানবদেহে পানির প্রয়োজন

সংযুক্ত স্থানগুলো পিচ্ছিল করতে : শরীরের যে অঙ্গগুলো সংযুক্ত অবস্থায় থাকে, সেখানে কার্টিলেজের উপস্থিতি থাকে। শারীরিক কাজ সঠিকভাবে সম্পাদনের জন্য কার্টিলেজে ৮০ শতাংশ পানির উপস্থিতি থাকা প্রয়োজন। দীর্ঘ সময় পানি পান না করলে এই স্থানগুলো শুকিয়ে গিয়ে ব্যথা হতে পারে।

পরিপাকতন্ত্রে : নিয়মিত পানি পান করলে লালাগ্রন্থি শুকিয়ে যায় না বলে সহজে খাবার হজম হয়। পানির কারণে মুখ, নাক, চোখ ভেজা থাকে, যা বিভিন্ন সময় ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করে এই অঙ্গগুলোকে। মিষ্টি খাওযার পর পানি পান দাঁতকে ক্ষয় থেকে বাঁচায়।

শরীরের বিভিন্ন অংশে অক্সিজেন পৌঁছানো : রক্তে পানির পরিমাণ ৯০ শতাংশেরও বেশি। রক্ত শরীরের বিভিন্ন অংশে অক্সিজেন পৌঁছে দেয় অর্থাৎ পানিও শরীরের সব অংশে পৌঁছে যায়।

ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায় : পানির অভাবে ত্বক রুক্ষ হয়ে যেতে পারে। সঙ্গে দেখা দিতে পারে অনাকাক্সিক্ষত ভাঁজ।

মস্তিষ্কের নিরাপত্তায় : মস্তিষ্কের গঠন এবং কার্যকারিতায় পানির গুরুত্ব অনেক বেশি। দীর্ঘ সময় পানি পান না করলে স্পাইনাল কর্ড ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।



হজম সমস্যা দূর করে : হজম সমস্যা সমাধানে, কোষ্ঠকাঠিন্য, এসিডিক সমস্যায় পানি পান করা জরুরি। পাকস্থলীর আলসার এবং হৃদযন্ত্রের সমস্যা দেখা দিতে পারে ডিহাইড্রেশনের কারণে।

ব্লাড প্রেশার নিয়ন্ত্রণে রাখে : শরীরে পানি কম প্রবেশ করলে রক্ত পাতলা হয়ে দেখা দিতে পারে ব্লাড প্রেশার।

কিডনির সমস্যা : কিডনি শরীরের তরল পদার্থ নিয়ন্ত্রণ করে। অপর্যাপ্ত পানির কারণে কিডনিতে পাথর ছাড়াও দেখা দিতে পারে নানা সমস্যা।

যুক্ত হোন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে এখানে ক্লিক করুন এবং আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন ফেইজবুক পেইজে এখানে ক্লিক করে।


এই বিভাগের আরো সংবাদ